কোমর দুলিয়ে ‘বাংলা নাচে’ মুস্তাফিজের জয় উদযাপন। বিশ্বাস না হলে এখনি দেখুন

কোমর দুলিয়ে ‘বাংলা নাচে’ মুস্তাফিজের জয় উদযাপন। বিশ্বাস না হলে এখনি দেখুন

আরিফুর রাজু: মাঠ কিংবা মাঠের বাইর সর্বত্রই চলছে মুস্তাফিজ ভেলকি। মাঠে কোহলি-গেইলদের বুকে ধুরু ধুরু কাঁপন, আর বাইরে সতীর্থ বোলারদের মিনতি। মূলে ‘কাটার’ রহস্য শেখানোর অনুরোধ। এক কথায় ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) নবম আসরে প্রথম বারের মতো যোগ দিয়ে সবাইকে মাতিয়ে দারুণ সময় কাটাচ্ছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের এই ‘কাটার মাস্টার’।

সর্বশেষ ফাইনালে শক্তিশালী বিরাট কোহলির বেঙ্গালুরুরের বিপক্ষে ৮ রানে জয় পেয়ে শিরোপা নিজেদের করে নেয় হায়দরাবাদ। রবিবার বেঙ্গালুরুর চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামের ম্যাচটিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ২০ ওভারে ২০৮ রান সংগ্রহ করে ওয়ার্নার বাহিনী। জবাবে নির্ধারিত ওভারে ৭ উইকেট

হারিয়ে ২০০ রান তুলতে সক্ষম হয় বেঙ্গালুরুর। যদিও প্রথমে গেইল-কোহলির ঝড়ো ব্যাটিংয়ে হায়দরাবাদ ভক্তদের বুকে কাঁপন ধরেছিল। কিন্তু পরোক্ষণে মুস্তাফিজের নিয়ন্ত্রিত বোলিং ও বেন কাটিং এর ২ উইকেটে থমকে যায় বেঙ্গালুরুর রানের চাকা।

হায়দরাবাদের অভিজ্ঞ অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার গুটি কয়েকজন ব্যাটসম্যান আর দুর্ধর্ষ দুই তিন জন বোলার নিয়ে স্বপ্নের ফাইনাল জিতে নিলেন। দলটি শুধু ফাইনালে উঠেই ক্ষান্ত হয়নি তারা, সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে প্রথম শিরোপা জয়ের স্বাদও এনে দিয়েছে। আর তাতেই আনন্দে মাতোয়ারা হয়ে পড়ে দলটির খেলোয়াড়। নেচে গেয়ে মাঠ তাতিয়ে উৎসব করে তারা। এমনকি ম্যাচ জয়ের পর কোমর দুলিয়ে নাচতে দেখা যায় কাটার বয় মুস্তাফিজুর রহমানকে। আর তখন সতীর্থরা সমর্থন দিয়ে বাংলা নাচে যোগ দেন।

প্রসঙ্গত, আইপিএল নবম আসরটিতে সেরা উদীয়মান ক্রিকেটারের পুরস্কার জিতে নিয়েছেন মুস্তাফিজুর রহমান। আইপিএল কমিটির কাছ থেকে ১০ লাখ রূপি পেলেন মুস্তাফিজ। আসরটিতে ১৬ ম্যাচে ১৭ উইকেট নিয়ে উইকেট শিকারির তালিকায় ৫ম স্থানে রয়েছেন বাংলাদেশের এই বোলার। বোলরদের মধ্যে (কমপক্ষে ১০ ম্যাচ খেলা) সবচেয়ে কম ইকনোমি রেট মুস্তাফিজের (৬.৯০)।

আইপিএলের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে সেরা উদীয়মান খেলোয়াড় নির্বাচনে দর্শকদের ভোটের ৮৩.২ শতাংশ পেয়েছেন মুস্তাফিজ। দ্বিতীয় স্থানে থাকা লোকেশ রাহুল পেয়েছেন ৬.৫ শতাংশ ভোট।

X
(Visited 211 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*